আমার দূর্গা – প্রসেনজিৎ মুখার্জী

শ্বিনমাসে কাশের ফুলে
দূর্গা আসে সবার ঘরে
আমার দূর্গার শরীর জ্বলে
বধূর বেশে স্বামীর ঘরে

জ্বালিয়ে আগুন তার গায়ে
তোমরা মাতো দূর্গা নিয়ে
আমার দুর্গার দৃষ্টি কেড়ে
তোমার দুর্গার দৃষ্টিদানে

আমার দূর্গা ঝোঁপের মাঝে
নোংরা শরীর অঝোর কাঁদে
তোমার দূর্গা মণ্ডপ মাঝে
আলোর রোশনাই গহনা সাজে

আমার দূর্গা পতিতালয়ে
প্রতি রাতে শরীর বেচে
তোমার দূর্গা মূর্তি মাঝে
ত্রিশুল হাতে পটের সাজে

তোমার দূর্গা কোটি টাকার
সোনা গহনায় সুসজ্জিতা
আমার দূর্গা আশির বৃদ্ধা
রাস্তার ধারে আজ ধর্ষিতা

তোমার দূর্গা থিমের মাঝে
পোশাক খাবার মন্ধপের সাজে
আমার দূর্গা আধপেটা খায়
আধপেটা তার শিশুটিরে দেয়

তোমার দূর্গা নেতা মন্ত্রীর
আলোকসজ্জায় আর কার্নিভালে
আমার দূর্গা পার্কস্ট্রিটে আজ
দামিনী রূপে বিরাজ করে

তোমার দূর্গা দেবীপক্ষে
কল্পকথায় গল্পমাঝে
আমার দূর্গা আজও কাঁদে
কামদুনিরই পথে ঘাটে

আমার দূর্গা দিনে রাতে
মাতৃস্নেহে, পিতার পাশে
আমার দূর্গা এই দশকে
ছেলের মতোই পাশে পাশে

আমার দূর্গা দেবীপক্ষে
আজিকে দেখো রনংদেহী
আমার দূর্গা পন করেছে
হুংকার তাই ত্রাহি ত্রাহি

আমার দূর্গা পন নিয়েছে
মায়ের সম্মান রক্ষা করার
তাইতো দেখো কাঁপছে ধরা
ধর্ষক যত আজিকে সারা

আমার দূর্গা পথে পথে
লড়াই করেই বাঁচতে জানে
আমার দুর্গার রূপের মাঝেই
চণ্ডীরূপ বিরাজ করে

আমার দূর্গা পথের ধারে
লাঞ্ছনা আর সইবে না
আমার দূর্গা সূতিকাগারে
মরবে না আর মরবে না
আমার দূর্গা নারীর বেশে
হয়েছে আজ প্রতিবাদী
আমার দূর্গা মার্ খাবে না
সমাজে আর ভয় পাবে না
আমার দূর্গা আর কাঁদে না
চোখ থেকে তার আগুন ঝরে
আমার দূর্গা আঁচড় খেলে
ঘুরিয়ে তাদের নিধন করে

আমার দূর্গা অস্ত্র হাতে
সম্ভাবনী যুগে যুগে
আমার দূর্গা শক্তি রূপে
অস্ত্র হাতে দশভুজে

আমার দূর্গা ছিন্ন বস্ত্রে
রূপং দেহি জয়ং দেহি
আমার দূর্গা কল্যানং বিদেহী
সর্ব শত্রু বিনাশিনী

 

___


FavoriteLoading Add to library

Up next

নিয়মিত জীবন-যাপন - সমর্পণ মজুমদার   জীবনে অনেক কিছুই করতে ইচ্ছে হয় আমাদের। যা দেখেই আমরা অনুপ্রাণিত হই, সেটাই করতে ইচ্ছে করে। সেটা যে কোনো নির্দিষ্ট একটা বিষ...
বদনামের ফাঁদে – তুষার চক্রবর্তী... সুচিত্রার আজ পনের দিন হয়ে গেল চোখে ঘুম নেই। সারা রাত একা নিজের ঘরের বিছানায় এপাশ ওপাশ করেছে। রোজই দু তিনবার উঠে জল খেয়েছে, একবার বাথরুমে গেছে। এখন আয়ন...
আতঙ্কের সেই কালো রাত – সরোজ কুমার চক্রবর্তী...     আমরা তিন থেকে চারজন সবাই অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী | সবার বয়স প্রায় সত্তরের ঊর্ধ্বে | আমরা যেখানে থাকি জায়গাটা হলো দমদম স্টেশনের কাছাকাছি | এখানে আমাদে...
চল দাওকি – দেবাশিস_ভট্টাচার্য... মন খারাপ করা এক বিকেলে রুশা দাঁড়িয়ে ছিল দাওকি ফরেস্ট বাংলোর সামনের লনে। অস্তগামী সূর্যের লাল আলো ধীরে ধীরে ছড়িয়ে যাচ্ছে দূরের পাহাড়গুলোর অন্দ...
করিডোর - বর্ষা বেরা   ব্ল্যাক করিডোর,কানে হেডফোন,কফিতে চুমুক        হাতে ব্যোমকেশ। মুখে সাদা ধোঁয়া,গুনছে প্রহর,এক ঝড়েতেই    সবশেষ ।। হঠাৎ বসন্ত,...
ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment