আলোর উৎসব – গার্গী লাহিড়ী

বাঙালির প্রিয় শারদোৎসব হয়ে গেল শেষ

রয়ে গেছে শুধু শুভেচ্ছা বিনিময়ের রেশ ,

আসন্ন দীপাবলি ঘরে ঘরে রঙিন লাইট

মাটির প্রদীপ পলকা ভারি করতে পারেনা ফাইট |

আলোর ঝর্ণা বেয়ে দীপাবলি ঐ হাতছানি দিয়ে ডাকে

ফুলঝুরি তুবড়ি রংমশাল সব লাইনে দাঁড়িয়ে থাকে ,

শব্দ বাজির দাপটে জন জীবনের ওঠে নাভিশ্বাস

দুমদাম ফুটফাট শেষ হয়না আনন্দের উল্লাস |

কেউ বলে মিষ্টি পাঠাও রাশভারী প্রতিবেশী কে

সুসম্পর্কের বীজ পোঁতা আছে ঐ একটি প্যাকেটে ,

পূজনীয় পিতা নিগৃহীত বারে বারে যার হাতে

সেই নাকি বংশের প্রদীপ শিব রাত্রির সলতে |

নিজের জীবন পণ রাখে বাবা কী এক অন্ধ বিশ্বাসে

ছেলে ঠিক শুধরে যাবে অলক্ষ্যে অন্তর্যামী হাসে ,

বাবা ছেলের ভালোবাসার বাঁধন মধুর কি করে হবে ?

হায় রে সমাজ সেই মিষ্টি আবিষ্কার হবে কবে ?

কেউ বা বলে বাদাম ছাড়া হয় না কভু দীপাবলি

হায় বাঙালির চোদ্দ শাক ! তোর এবার অন্তর্জলী  ,

মাইকে বাজবে শ্যামা সংগীত ‘শ্যামা মা কি আমার কালো’

পুত্রবধূ কিন্তু ফর্সা চাই , না না এই মেয়েটা বেজায় কালো |

মধ্যবিত্তের পাখির চোখ ভাইয়ের কপালে ফোঁটা

কবজি ডুবিয়ে পূরণ করবে উৎসবের বাকি কোটা ,

প্রতি বছর পুজোর উৎসব

এমনি ভাবেই চলবে ,

মনের মাঝে আশা তবু

সামনে সুদিন আসবে |

উৎসব শেষে গতানুগতিক জীবন যাপন বদলাবেনা

কাছে এসে মিষ্টি হেসে কেমন আছো কেউ শুধোবে না ,

স্মৃতির বুকে ক্ষণিক আনন্দ স্থান করে নেয় পাকা

দিনের শেষে আমরা সবাই

নিজের কাছেই একা ||

____


ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment