অভাবে নাকি ভালোবাসা পালায় – রুমা কোলে

কথায় আছে –

” অভাব যখন দরজায় কড়া নাড়ে প্রেম নামক ভালোবাসাটা নাকি জানালা দিয়ে পালায় “

না বক্তব্যটির বা বচনটির সত্যতা যাচাই বা বিরুদ্ধাচারণ কোনোটাই আমার উদ্দেশ্য নয় ।

আমি তো কেবল একটা জীবনযাপনের গল্প বলব –

রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে ট্রেনে – বাসে কলেজ যেতে হয় তো এত্ত ভালোবাসা, প্রেম নিয়ে ভাবার আগেই অনুভূতিগুলো মরে যায় কেমন ।

                 সে যাই হোক বাস থেকে নেমে দু মিনিট মতো হাঁটা পথ আর সেই পথেই পরে কলকাতার ফুটপাথ যেখানে মাথা গোঁজার আশ্রয় কিছু অভাবী মানুষের । তো যথারীতি তাদের মারিয়েই আমাদের যেতে হয় । আর চলতি পথে চোখ চলে যায় ওদের দিকে , দেখি – অনুভব করি কিন্তু অন্যদের মতো বলতে পারি না ” চল রোড দিয়ে যাই ফুটপাথটা বড্ড নোংরা ।

              তবে আমার বেশ ভালোই লাগে ওদের ছোট্ট মতো সংসারখানা দেখতে । হতে পারে ওদের টাকা পয়সার অভাব , হতে পারে ওদের মাথার ওপর ছাদটুকু নেই ,তবুও অদ্ভুত একটা ভালোবাসা আছে সেটা অনুভব করি প্রতি মুহূর্তে,  হ্যাঁ ওই নোংরা ফুটপাথেই প্লাস্টিকে ঘেরা ছাদ আর গায়ে ছেঁড়া কম্বলে । হতে পারে ওদের চার দেয়ালের ঘেরা সংসার নেই , তাতে কী ? গরীব বলে কী সংসার গড়ার সাধ হতে পারে না?  ছেঁড়া কাঁথায় শুয়ে লাখ টাকার স্বপ্ন হয়তো ওদের স্বপ্নের অতীত , তবে হ্যাঁ ওদের মধ্যেও আছে সদ্য মা হওয়ার অনুভূতি , কিংবা বৃদ্ধা শাশুড়ির গঞ্জনা,  ভাই – বোনের গঞ্জনা ইত্যাদি ইত্যাদি ।

              আর এত্ত অভাবেও সবচেয়ে ভালো লাগার বিষয়টা হল – সদ্য প্রেমে পরা উনিশ বছরের মেয়েটা আর ছেলেটা । প্রথম প্রথম যখন কলেজ যেতাম ওদের প্রেমে পরাটা বুঝতে পারতাম । আজ ওরা বিবাহিত । তবে হ্যাঁ ওদের না আছে শাঁখা – পলার – সিঁদুরের ঘনঘটা, না আছে জাতি – ধর্মের রীতিনীতি,  না আছে ফুলশয্যা , না আছে ব্যক্তিগত জীবন যাকে আমরা সভ্য ব্যক্তিরা বলি ” প্রাইভেসি ” , ওদের রোজ রোজ ” আই লাভ ইউ ” ও বলতে লাগে না , ওরা ব্রেক আপ , বিবাহবিচ্ছেদ এসবের নিয়মকানুনও জানে না । কেবল ভালোবাসতে জানে আর তাতেই খোলা আকাশের নীচে একটা কম্বলে দুজন মিলে কাটিয়ে দেয় রাতের পর রাত ।

             তবে আমাদের মতো সভ্য সমাজের চোখে দৃশ্যটা একটু দৃষ্টিকটু প্রতীয়মান হতেও পারে । তাতে আর কি করা যাবে গরীব বলে , ঘর বাড়ি নেই বলে কি বিয়ে করবে না ? ভালোবাসবে না ? নাকি প্রেমে পরবে না ?

আমাদের মতো চার দেয়ালের বন্দি সংসারে হয়তো অভাব দরজায় কড়া নাড়লে ভালোবাসা জানালা দিয়ে পালায় ।

আর ওদের ???? হা হা হা হা ,,,,,

যাদের চারটে দেওয়ালই নেই তাদের আবার দরজা !!! তাদের আবার জানালা !!! যাদের অভাব থেকেই ভালোবাসা জন্মায় তাদের আর যাই হোক অভাবের ঠকঠকানিতে ভালোবাসা পালায় না । সেই সুযোগটাই যে নেই ।

 খোলা আকাশের নীচেও ঘর বাঁধা যায়,

সাদা – কালো অভাবের জীবনেও প্রেম আসে ,

ফুটপাথে ছেঁড়া কম্বলের নীচেও ঘনিষ্ঠ হওয়া যায়,

কেবল ভালোবাসাটুকু থাকলে ।

কোনো প্রেম নিবেদনের ঘনঘটা, ভ্যালেন্টাইনস ডে, চকলেট, কার্ড , বিবাহবার্ষিকীর ইত্যাদি সেখানে তুচ্ছ ।

যেখানে ‘ ভালোবাসা ‘ টাই স্পষ্ট ।

তাই কথাটার পরিবর্তনের প্রয়োজনীয়তা আছে –

” সচ্ছল সংসারে সভ্য মানুষের সংসারে হঠাৎ অভাব দরজায় কড়া নাড়লে ভালোবাসা জানালা দিয়ে পালায় ।”

_____


FavoriteLoading Add to library
Up next
বাঙালীর দূর্গাপুজো – দীপ্তি মৈত্র... দুগ্গা পূজা ভারী মজা পড়াশুনা নাই ঘুরে ঘুরে ঠাকুর দেখা দিন-রাত্তির ভাই। সংগে চলে “খানা-পিনা” বাহারে বাহার, মাতিয়ে রাখে কটা দিন কি মজাদার।    ছোট্ট ...
উল্টো ছন্দ - গার্গী লাহিড়ী   (৩) রাজপথ জনশূন্য হয়ে পড়ে ধীরে ধীরে কমে আসে যান চলাচল ঝমঝম বৃষ্টি নামে শহরে নিথর দেহ পড়ে থাকে রাস্তায় মাথায় হাত রাখার...
স্বপ্ন দেখে – সমর্পণ মজুমদার...      আমার কাছে স্বপ্নের একটা নিজস্ব ধারণা আছে। জানিনা সেটা অন‍্যদের মতের সঙ্গে মিলবে কিনা, কিন্তু আমি মনে করি স্বপ্নের এই সংজ্ঞাটা যথেষ্ট বিজ্ঞানসম্...
মঞ্চ – হ য ব র ল স্কুলে নতুন টিচার এসেছেন সাংস্কৃতিক বিভাগের। প্রতি বছরের মত এবছরও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে একাদশ শ্রেণীর ছাত্র-ছাত্রীরা। তার জন্যই আজ এই মিট...
কি যাদু মা ডাকতে - অদিতি ঘোষ      প্লীজ, স্টপ ইট্। এই ধানাই পানাই ভাল লাগেনা আমার। প্রত‍্যেকদিন সেই একই আলোচনা। রাগে ফুঁসতে ফুঁসতে কথাকটা উগলে দিয়ে,পার্শটা...
রক্তাত্ব – সৌভিক মল্লিক... একটা লম্বা ঘর এই পৃথিবী, ছাদের গায়ে ভালোবেসে আঁকড়ে ধরে আছে ফাটল। ফাটলে চুইয়ে চুইয়ে রাস্তা বানিয়ে নেয় রক্ত, সেই রক্তে সভ্যতা আর গণতন্ত্রের বাদল। ...
পড়-ঢলানি পরকীয়া পরকীয়া শ্রেয় কিন্তু যখন ভাবায় তখন!ভাবায় অনেক,থমকে যাওয়ার মাঝে অনেক টা ফাঁক ,ফাঁক থেকে ফাঁকা ,ফাঁক থেকে ফাঁকি,এহলো "ফাঁক "এর প্রেম একবার "আ "-এর সাথে ত...
প্রমাণ – সৌম্যদীপ সৎপতি... "আরে আরে, রাজেন না কি? কদ্দিন পর দেখা, এত রাত্রে বনের পথে যাচ্ছ একা একা? একসঙ্গেই যাওয়া যাবে, বাড়ি ফিরছ না কি? চলো তবে, আমিও এখন কাছাকাছিই থাকি। ...
শরীরকে সুস্থ রাখতে চ্যবনপ্রাশের ভূমিকা – অঙ্... এ কথা আজ সর্বজনবিদিত যে আয়ুর্বেদ চিকিৎসা পদ্ধতির উৎস হল এই ভারতবর্ষ। এই চিকিৎসা পদ্ধতি বর্তমানে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে, শুধু ভারতেই নয় অন্যান্...
বাংলা ছায়াছবির বাদশা... শাহরুখ খানকে বলা হয় বলিউডের বাদশা। কারন তিনি "বাদশা" বলে একটি হিন্দী ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। ছবিটি ফ্লপ করেছিল। কিন্তু তার বহু আগে এই বাংলায় "বাদশা" বলে...
ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment