নষ্ট মেয়ে -গার্গী লাহিড়ী

ষ্ট মেয়ে আমি

অবাক হচ্ছো ? নির্লজ্জ্ব কথাটা

কেমন অনায়াসে বললাম?

আমি লাজ বিক্রি করি ,

দেহের বেসাতি আমার

পথের ধুলায় পড়ে থাকে

লাল ফুল ছাপ বিছানায়

দেনা পাওয়ার হিসেব মেলাই |

কামতাড়িত নষ্ট পুরুষ

ভোগ লালসা মেটাতে আসে

স্বল্প পয়সার বিনিময়ে |

নগ্ন শরীরে হামলে পড়ে

শারীরিক তৃপ্তি কেনে -,

সামাজিক পরিচয় তাদের অন্য

দোকানদার কে সবাই জানে |

খদ্দের কে কজন চেনে ?

নষ্ট পুরুষের দল লালসা পোষে সংগোপনে ,

দেনা পাওনা খিস্তি খেউর সব অন্ধকার কোনে |

ধর্ষণ আর সহবাসের তফাৎ আমি বুঝিনা ,

সুখের আবেশে রতিক্রিয়া ?

অর্থ আমার অজানা |

শুধু বুঝি যন্ত্রণা কষ্ট ভয়

সব সহ্য করতে হয় ,

নষ্ট পুরুষ আমার শরীর নিয়ে খেলে

মুখোশ ছিঁড়ে চামচিকে রা ডানা মেলে |

আমি দেখেছি তীক্ষ্ণ নখ , লালাঝরা স্বদন্ত

রংমাখা মুখ গন্ধভরা দেহের জ্যান্ত ময়নাতদন্ত ,

আমার গায়ে আদিম অরণ্যের গন্ধ

চোখের কোনের জলকপাট তাই বন্ধ |

মাতৃত্বের স্বাদ আমি পেতে চাই না

তাজা প্রাণ কে বিছানায় ঠেলে দিতে মন মানে না ,

স্বামী সোহাগিনী বধূর শরীর ছিঁড়ে

নষ্ট পুরুষ হারিয়ে যায় সমাজের ভিড়ে |

বাবার আদরের কিশোরী কন্যা

পৌরুষের আঘাতে অব্যক্ত কান্না ,

ছোট্ট শিশুর অঙ্গ প্রত্যঙ্গ

নিজেদের কে চেনেই না |

যোনির অভিশাপ আমৃত্যু

এখনো যেটা সে বোঝেই না ,

বয়স তোমার কাছে সংখ্যা মাত্র

৩ হোক বা ৭০ কি এসে যায়?

যোনি প্রদেশই তোমার বিচরণ ক্ষেত্র |

সুসভ্য জাতির শিরোপা নেই তোমার মাথায়

সুশীল সমাজ তোমার দিকে

কুটিল চোখে তাকায় ,

এস তুমি আমার কুঞ্জে প্রতিনিয়ত

নগ্ন শরীরে ইচ্ছেমত বানিয়ে যাও ক্ষত |

নষ্ট পুরুষ তুমি ধর্ষক সব জায়গায়

বলপূর্বক হোক বা পয়সার বিনিময় ||

_____


FavoriteLoading Add to library

Up next

তোমাকে দিলাম – সৌম্য ভৌমিক... তোমাকে দিলাম ভোরের লালচে আকাশ শরৎ মাখা নদীর ধারের কাশ , তোমাকে দিলাম ড্রইং খাতার রং মেঘ চিরে যাওয়া শঙ্খচিলের ঢং | তোমাকে দিলাম আমার ভাবনাগুলো ছ...
শৈশবের উত্তমকুমারকে ফিরে দেখা... - অস্থির কবি (কল্লোল চক্রবর্তী)  উত্তম পর্ব- ১ ছোট বেলা। সবে জ্ঞান হয়েছে। একটা চিত্র প্রদর্শনীতে গেছি। হাসিমুখের এক ব্যাক্তির ছবিতে চোখ আটকে গেল। বল...
ষাটেও স্থিরযৌবনা মহুয়া – শুভদীপ বন্দ্যোপাধ্য... মহুয়া আজ ষাট। হীরক জয়ন্তীতে সোনালী রায় ওরফে শিপ্রা ওরফে মহুয়া। ভাবা যায় মহুয়াও এখন এক নাতনীর ঠাকুমা।মহুয়ার গোলা ওরফে তমাল-এর মেয়ে।যার মুখ অনেকটাই মহু...
ভয়ার্ত দুপুর – শাশ্বতী সেনগুপ্ত... আজ কয়েক মাস হয়ে গেল বিজুরা উঠে এসেছে নাকতলার বাড়িটায়। বাড়িটা একতলা আর বেশ ফাঁকা মত। ওদের এই ভাড়া বাড়ি থেকে একটু দূরে মাত্র কয়েকটা বাড়ি রয়েছে। আসলে জলা...
ননসেন্স রাতবিরেতে হাঁচেন কেনো গঙ্গাধরের মামা,দুপুরবেলায় রাঙা পিসি দিচ্ছে কেনো হামা।মিষ্টিমাসির বুধবারেই জ্বর কেনো আসে,ন' কাকু চাকরী কেনো ছাড়েন মে মাসে।হাবুদের...
মুক্তির গন্ধ – প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়...  কত রকম না আশ্চর্যের ঘটনা ঘটে। কোনও কোনও সময় মনে হয়, এগুলো কি সত্যি নাকি নিছক মনের ভুল সব। কে জানে। কিন্তু ঘটনাটা অস্বীকারও করা যায় না। সময়টা বসন্তকাল...
দূর্গামায়ের সিন্দুরকৌটো – স্বরূপ রায়... ১ আজ চতুর্থী। টুনু আর ফজিল বসে ঠাকুর গড়া দেখছিল। টুনুদের বাড়িতে প্রতি বছর দুর্গাপূজা হয়। টুনুর প্রপিতামহ সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী এই অঞ্চলের জমিদার। ...
বসুধার কান্না – গার্গী লাহিড়ী... ঘুরতে ঘুরতে ক্লান্ত অবনি নিতে চায় অবসর, উত্তরে বলে বিশ্ব বিধাতা আরো পর আরো পর | কাতর কণ্ঠে ধরা বলে যায় আমার সবুজ সকলই শুকায়, এত অন্যায় এত অবিচ...
তবু ভালোবাসি – সায়ন্তনি ধর... ।। ১।। -“হ্যালো মা, আমি সুমি বলছি। আমরা পৌঁছে গেছি, তুমি চিন্তা কর না, রনি সবসময় আমার সাথেই আছে” মা কে কথা গুলও বলে ফোনটা রেখে আবার রনজয় কে ফোন করল স...
চল দাওকি – দেবাশিস_ভট্টাচার্য... মন খারাপ করা এক বিকেলে রুশা দাঁড়িয়ে ছিল দাওকি ফরেস্ট বাংলোর সামনের লনে। অস্তগামী সূর্যের লাল আলো ধীরে ধীরে ছড়িয়ে যাচ্ছে দূরের পাহাড়গুলোর অন্দ...
ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment