নেতাজী-একটি আগুন – প্রসেনজিৎ মূখার্জী

ছোটবেলায় ছোট্ট মনে আসতো ভেসে শুধুই
স্বাধীনতার￰￰ মানেটা কি?
সকলকে কেবলই তা শুধোই
একটু বড়ো হলে পরে মায়ের কোলে শুয়ে
একটি ছবিই আসতো ভেসে বইয়ের পাতায় চেয়ে
মাকে শুধাই, বলো না মা নেতাজি কোথায় আছে ?
মা বলতো মোদের বুকে আছে সে ￰বহ্নি শিখা হয়ে
বাবাকে শুধাই, বলো না বাবা ফিরবে সে যে কবে
মৃত্যুতারিখ নেই যে বই এ জীবিত কোথাও রবে!
দাদু বলতো, ফিরবে দাদুভাই ফিরবে সে নিশ্চয়ই
প্রকৃত স্বাধীন করতে হলে তাঁকেই মোদের চাই |
এমনি করেই ক্রমে ক্রমে ভক্ত আমি তোমার
পথে ঘাটে খুঁজি আজও দেখতে শুধুই একটি বার |
কখনো শুনি সাধুর বেশে রয়েছো তুমি গুহায়
কেও বা বলে দেখেছে জার্মানী বা রাশিয়ায় |
জানি না তুমি ফিরবে কি না,আছো তুমি কোথায়
তবে তুমি থাকবে জানি আমার মনি কোঠায় |
সত্যি যদি ফিরে আসো শুধুই কষ্ট পাবে
ভারত মায়ের সম্মান সেই ধুলার’পরেই দেখে |
কাদের জন্য লড়েছ তুমি,রক্ত দিয়েছো যারে
ক্ষমতারলোভে তারাই মাকে ভাগবাটোয়ারা করে |
যে আগুন তুমি জেলেছিলে ভারতবর্ষের বুকে
সেইআগুনেই স্বাধীনতার প্রথম প্রদীপ জ্বলে |
শেতাঙ্গদের পদতলে আপোষ নাহি করে
রক্ত দিয়েই বুঝিয়ে দিয়েছো স্বাধীনতার মানে|
শুধু শেতাঙ্গ কেন?আজও তাদের মনে পড়ে
যারাক্ষমতার লোভে তোমাকেই দেশদ্রোহী করে |
তাই তো তারা মায়ের ভাগবাঁটোয়ারা করে
মায়ের সম্মান বিকিয়ে দিতেও কুণ্ঠা নাহি করে|
শুধুকি তাই ইতিহাস থেকে তোমায় ভুলিয়ে দিতে ইতিহাস বিকৃত করেই নিজেদের রাষ্ট নায়ক করে| মানুষ সেতো একলা ঘরে নেতাজীর আবেগ ভুলে জন্মদিনে আয়েস করে স্বাধীনতার ভেলায় চড়ে | তবুও ভারতমাতার পদতলে দিবারাত্রি অশ্রু ঝরে
ব্যাভিচারিনী স্বাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত হতে |
ভারতবাসী তাই আজও প্রার্থনা করে করজোড়ে
আবার এসো এক 23শে সেই স্ফুলিঙ্গ হয়ে
শীর্ণ মস্তকে দাও ডাক আমি সুভাষ বলছি —
কম্পিত স্বরে বিদ্ধ হোক সেই আকাশ সেই বাতাস
বিকৃত স্বাধীনতা হতে জন্ম দাও এক নতুন সমাজ
প্রতিধ্বনিত এক মুক্তি নিশান উঠুক আজি
আমি সুভাষ বলছি আমি সুভাষ বলছি….

 

____


FavoriteLoading Add to library
Up next
দত্তক - গার্গী লাহিড়ী মধ্যরাতে বারান্দার কোনটিতে একলা বসে লেখিকা অনুসূয়া আজ সে বড় ক্লান্ত পোষমানা স্মৃতির পাতাগুলো বিতর্কের ঝড়ে এলোমেলো অবাধ্য এত ক্ষো...
মাছওয়ালী – পলাশ মজুমদার... ' ওই মাছটা কত করে দিচ্ছিস? ' - কোনটা, দেশী না বিলাসপুর? ' দেশী ' - দেশী একশো আশি, বিলাসপুর কুড়ি, পোনা দেড়শো। ' আর কাতলাটা? ' - ওটা তুই নিতে পারবি...
বেল – অদিতি রায় সাইকেল নিয়ে ফিরলে আর বেল দিতে শুনিনা সজোরে, যে বেল এর সঙ্গে ছিল সান্তার থলির থেকে অনেকটা আনন্দের হুড়মুড়িয়ে বেরিয়ে আসার নির্মল আওয়াজ৷ দূরের কোনো...
অবিশ্বাস্য সেই রাত – শাশ্বতী সেনগুপ্ত... বাসে বসে বসেই বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যে হয়ে গেল। অমিত ড্রাইভারের পাশের সিটে বসে ‘আর কতদূর’ জিজ্ঞাসা করতেই ড্রাইভার উত্তর দিল, ‘অর থোড়াসা’। অফিসের কাজ নিয়ে এ...
সে যে মানে না মানা বলেছিলাম অনেক কথা বলিনি তবে কিছু গোপন থেকে সব কথাকে ই বলে দিয়েছি কিন্তু,বুঝলেন না!গুলিয়ে গেলো,আমার ও ঘেঁটে ঘ,প্রেম কিন্তু বড্ড জটিল,প্রেম জটিলতার জট!"...
বিরল বিবাহ -বিভূতি ভূষন বিশ্বাস... হিন্দু সমাজে আট রকম বিবাহের কথা বলা আছে তার মধ্যে চার রকমই দেখা যায় তবে বিখ্যাত হলো দুই রকম ১) দেখা শুনা করে বিয়ে । ২) প্রেম করে বিয়ে । আচ্ছা সব বুঝল...
অমানুষ, এক অমর উত্তম গাথা-... - অস্থির কবি (কল্লোল চক্রবর্ত্তী) (উত্তম পর্ব ২) উত্তম কুমারের প্রায় শেষ দিকের অভিনয় জীবনের এক মাস্টার স্ট্রোক হল - "অমানুষ"। এই ছবির পর তিনি বম্বেত...
আভাষ – শাশ্বতী সেনগুপ্ত... সব কিছুই যে ব্যাখ্যা করা যায় তা নয়। কিছু ব্যাপার থাকে যা ব্যাখ্যা করা যায় না। তেমনিই একটা ঘটনার কথা উল্লেখ করব। ঘটনাটা ঘটেছিল সুকৃতির জীবনে। সুকৃতি আম...
ফিরবেনা জেনেও – পদ্মাবতী মন্ডল... "লেখা,এই লেখা ....আছিস বাড়িতে? " "দেখ না ওর কী হয়েছে সকাল থেকে দরজা বন্ধ করে শুয়ে আছে "  লেখার মা ওর বান্ধবী কে উদ্দেশ্য করে বললো । "ও কী আজ টিউ...
বাঙালীর দূর্গাপুজো – দীপ্তি মৈত্র... দুগ্গা পূজা ভারী মজা পড়াশুনা নাই ঘুরে ঘুরে ঠাকুর দেখা দিন-রাত্তির ভাই। সংগে চলে “খানা-পিনা” বাহারে বাহার, মাতিয়ে রাখে কটা দিন কি মজাদার।    ছোট্ট ...
ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment