নেতাজী-একটি আগুন – প্রসেনজিৎ মূখার্জী

ছোটবেলায় ছোট্ট মনে আসতো ভেসে শুধুই
স্বাধীনতার￰￰ মানেটা কি?
সকলকে কেবলই তা শুধোই
একটু বড়ো হলে পরে মায়ের কোলে শুয়ে
একটি ছবিই আসতো ভেসে বইয়ের পাতায় চেয়ে
মাকে শুধাই, বলো না মা নেতাজি কোথায় আছে ?
মা বলতো মোদের বুকে আছে সে ￰বহ্নি শিখা হয়ে
বাবাকে শুধাই, বলো না বাবা ফিরবে সে যে কবে
মৃত্যুতারিখ নেই যে বই এ জীবিত কোথাও রবে!
দাদু বলতো, ফিরবে দাদুভাই ফিরবে সে নিশ্চয়ই
প্রকৃত স্বাধীন করতে হলে তাঁকেই মোদের চাই |
এমনি করেই ক্রমে ক্রমে ভক্ত আমি তোমার
পথে ঘাটে খুঁজি আজও দেখতে শুধুই একটি বার |
কখনো শুনি সাধুর বেশে রয়েছো তুমি গুহায়
কেও বা বলে দেখেছে জার্মানী বা রাশিয়ায় |
জানি না তুমি ফিরবে কি না,আছো তুমি কোথায়
তবে তুমি থাকবে জানি আমার মনি কোঠায় |
সত্যি যদি ফিরে আসো শুধুই কষ্ট পাবে
ভারত মায়ের সম্মান সেই ধুলার’পরেই দেখে |
কাদের জন্য লড়েছ তুমি,রক্ত দিয়েছো যারে
ক্ষমতারলোভে তারাই মাকে ভাগবাটোয়ারা করে |
যে আগুন তুমি জেলেছিলে ভারতবর্ষের বুকে
সেইআগুনেই স্বাধীনতার প্রথম প্রদীপ জ্বলে |
শেতাঙ্গদের পদতলে আপোষ নাহি করে
রক্ত দিয়েই বুঝিয়ে দিয়েছো স্বাধীনতার মানে|
শুধু শেতাঙ্গ কেন?আজও তাদের মনে পড়ে
যারাক্ষমতার লোভে তোমাকেই দেশদ্রোহী করে |
তাই তো তারা মায়ের ভাগবাঁটোয়ারা করে
মায়ের সম্মান বিকিয়ে দিতেও কুণ্ঠা নাহি করে|
শুধুকি তাই ইতিহাস থেকে তোমায় ভুলিয়ে দিতে ইতিহাস বিকৃত করেই নিজেদের রাষ্ট নায়ক করে| মানুষ সেতো একলা ঘরে নেতাজীর আবেগ ভুলে জন্মদিনে আয়েস করে স্বাধীনতার ভেলায় চড়ে | তবুও ভারতমাতার পদতলে দিবারাত্রি অশ্রু ঝরে
ব্যাভিচারিনী স্বাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত হতে |
ভারতবাসী তাই আজও প্রার্থনা করে করজোড়ে
আবার এসো এক 23শে সেই স্ফুলিঙ্গ হয়ে
শীর্ণ মস্তকে দাও ডাক আমি সুভাষ বলছি —
কম্পিত স্বরে বিদ্ধ হোক সেই আকাশ সেই বাতাস
বিকৃত স্বাধীনতা হতে জন্ম দাও এক নতুন সমাজ
প্রতিধ্বনিত এক মুক্তি নিশান উঠুক আজি
আমি সুভাষ বলছি আমি সুভাষ বলছি….

 

____


ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment