বৃষ্টিভেজার গান

  – সৌম্যদীপ সৎপতি,

চায়ের কাপের কুণ্ডলি ধোঁয়া, আকাশ ঝরায় অভিমান
কাকভেজা মন আত্মমগন, পাগলা হাওয়ায় অভিযান
মেঘেদের ভীড়ে নস্টালজিয়া, বজ্রে আকাশও দেয় শাপ
ছাতের সে ঘরে রুকুর দুনিয়া, পড়বে অপুর পা’র ছাপ!
কাগজের খেয়া বয়ে চলে একা, মন চলে যায় যদ্দুর
জীবনের সাঁকো তবু ভেজে নাকো, ছেলেবেলা আর কদ্দুর?

আবছায়া কাঁচে ঝাপসা শহর, বৃষ্টিভেজার কাব্য
অলস সময় পার হয়ে যায় হয়ে আজ তাতে দ্রাব্য
ফেলে সব কাজ মন জুড়ে আজ ভেজা কবিতার ডায়েরি
সুর মেখে গা’য় মন অসহায় লিখে চলে চেনা শায়েরি
বৃষ্টির শেষে ভেজা দেয়ালেতে সেই কনে দেখা রোদ্দুর
জীবনের সাঁকো তবু ভেজে নাকো, ছেলেবেলা আর কদ্দুর?

বাদলা আমেজে ভাষারাও ভেজে, সময় থমকে দাঁড়িয়ে
খোলা জানালায় আশকারা পায়, স্মৃতি আসে ভীড় বাড়িয়ে
বৃষ্টিতে ভিজে এসে অবশেষে স্বপ্নেরা মোছে ভেজা গা
সাক্ষী তিমির এ পাগলামির, ব্যর্থ হবে কি এ জাগা?
পক্ষীরাজও অধীর আশায়—-ফিরল কি রাজপুত্তুর?
জীবনের সাঁকো তবু ভেজে নাকো, ছেলেবেলা আর কদ্দুর?

পাড়া নিঝঝুম চোখে নেই ঘুম, স্মৃতিগুলো গেছে বেড়াতে
মেঘের বালিশে ঘুম যায় চাঁদ, নিয়েছে সে ছুটি এ রাতে
সোঁদা সুগন্ধে মেশে পেট্রল, শুনশান নয় রাজপথ
কেউ কি পাঠালো কোনো উড়োচিঠি পাগলা হাওয়ার মারফত?
রাজার কুমার আজও হতে পার গেছে কি সাত সমুদ্দুর?
জীবনের সাঁকো তবু ভেজে নাকো, ছেলেবেলা আর কদ্দুর?

  ———


ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment