ভয়টা কীসের – সৌম্যদীপ সৎপতি

ড়াই শুনে মনে তো হয় উল্টে দেবে সরকারই,
শুনতে পেলুম সেই তোমারই ভূতের নাকি ডর ভারি!
লজ্জা কিসের? আচ্ছা রোসো,
ধৈর্য ধরে খানিক বসো,
বাতলে দিচ্ছি ভূত ভাগানোর হরেক উপায় দরকারি!

জোছনা রাতে পড়লে পরে মামদো ভূতের খপ্পরে
ভয় না পেয়ে মুণ্ডুটা তার টানবে ধরে খপ করে।
মুণ্ডু তাহার বেজায় ঢিলে
আসবে খুলে টান টা দিলে
মুণ্ডু ছাড়া শরীরটা তার পড়বে সটান ধপ করে!

রাতবিরেতে যাওয়ার সময় ধান বা গমের ক্ষেত দিয়ে
পিছনে কেউ করলে ধাওয়া জানবে মাঠের পেত্নী এ।
লিকলিকে বেত সাড়ে তিন হাত
পেত্নী জেনো উহাতেই কাত,
পেত্নী ভাগে করলে তাড়া তেমনি একটা বেত নিয়ে।

বাঁশবাগানের ব্রহ্মদৈত্যি একটু রাগেই যান ক্ষেপে,
পড়লে তেনার খপ্পরেতে উঠতে পারে প্রাণ কেঁপে,
ভয় পেওনা, দাঁড়াও ঘুরে,
গান ধর ফের কণ্ঠ পুরে,
গান-টান তাঁর নয় কো পসন্দ্, যান পালিয়ে কান চেপে।

বলতে পারি আরও অনেক, এসব কথা বলেও সুখ,
ভূতের আবার ভয়টা কীসের? সদাই থাকো হাস্যমুখ।
ঐ যাঃ, গেল বিজলি বাতি;
বাপ রে, এ কী আঁধার রাতি!
রাম রাম রাম, অন্ধকারে কাঁপছে কেন আমার বুক?

____


FavoriteLoading Add to library

Up next

টান – সুস্মিতা দত্তরায়... নাম ছিল তার নেপাল মাহাতো। আমরা ডাকতাম 'নেপুদা' বলে। হয়তো কখনও কোনো উঁচু ক্লাসের দিদি আদর করে এই নামটা দিয়েছিল, তারপর থেকে সেই নামটাই রয়ে গেছে। সে যাই ...
উত্তোরণ – সৈকত মন্ডল... যদি ভাবো এক লহমায় সরিয়ে নেবে নিজেকে, তবে থামো, এ সূর্য শেষ সকালের নয়... যদি মনে করো কফিনের নিস্তব্ধতায় মিলিয়ে যাবে, তবে বলে যাও, চেষ্টারও উর্দ্ধে ক...
ভালোবাসি অন্ধকারকে – রুমা কোলে... তোমার চাহিদা দিনের , আমার রাতটুকুই প্রিয় । তুমি ভালোবাসো আলো , আর আমি ! রাতের কালো । হ্যাঁ ,  কালো , অন্ধকার , কালো ঘুটঘুটে অন্ধকার , যেখানে নিজ...
মহামানবের সাগরতীরে-  সমর্পণ মজুমদার...      রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর লিখেছেন "এই ভারতের মহামানবের সাগরতীরে", যা খুব অল্প কথায় ব‍্যাখ‍্যা করে দিচ্ছে ভারতবর্ষের মহান চিরন্তন সামগ্রিকতাটিকে। স...
বিষয় অনিল – অভিনব বসু...   বাংলা ছবির স্বর্ণ যুগে খুব কমই অভিনেতা আছেন যারা তিন মহারথী পরিচালকের ছবিতেই অভিনয় করেছেন, ঋত্বিক, মৃণাল এবং সত্যজিত এবং এঁদের সাথে অবশ্যই জ...
নরক থেকে স্বর্গ – বিভূতি ভূষন বিশ্বাস... চায়ের দোকানে গল্পগুজব করতে করতে হঠাৎ অমল বাবু কথা প্রসঙ্গে বলেই ফেললেন "আরে বিশ্বাস বাবু আপনি তো এ যুগের কর্ন ।"কথাটা শুনেই আমার মনে কেমন বিদ্যুৎ ...
শ্রীকৃষ্ণ বিচ্ছেদে – রুমাশ্রী সাহা চৌধুরী... শ্রীকৃষ্ণ বিচ্ছেদ অনলে মোর অঙ্গ যায় জ্বলিয়া..কানে হেডফোন মনে বিরহযন্ত্রণা,চোখটা আজ বড় ছলছল করছে শ্রীরাধার। ট্রেনের জানলা দিয়ে মুখটা বাড়ায় বাইরে, সবাইক...
মোহিনীর আতঙ্ক – শাশ্বতী সেনগুপ্ত...    জঙ্গলে পিকনিক? কথাটা শুনেই না করে দিয়েছিল রাজ। জঙ্গল এমনিতেই ভয়ঙ্কর। তার ওপর আবার এক রাত থাকা। মুখের কথা নাকি? কোনও দরকার নেই ভাই, পরিস্কার কথাটা ফ...
আমরা নস্টালজিক শহরে প্রেমে না পরার গল্প – রু... শহরের নস্টালজিয়াকে সাক্ষী রেখে , ট্রামে বাসের প্রেমগুলো থেকে যায় একদিনের স্মৃতির খাতায় বন্দি হয়ে । আর মস্তিষ্কের ডান গোলার্ধে স্মৃতিচারণ ঘটায় প্রাক্...
বর্তমান – সমর্পণ মজুমদার...         মানুষ স্বপ্ন দেখতে খুব ভালোবাসে। অতীতের স্মৃতিরোমন্থন করে সুখ লাভ করে। ভবিষ্যতের ইচ্ছেগুলো কল্পনা করেও রোমাঞ্চিত হয়। আমরা বেশিরভাগই চিন্তা ...
ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment