সুদূরের পিয়াসী – বৈশাখী চক্রবর্তী

থা হচ্ছিলো সেদিন বিকেলে তোমার সাথে,

মুঠো ফোন ও আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে,

শত সহস্র মাইলের ব্যবধান,

 তোমার ওই মাটি আর আমার এই প্রাঙ্গনে।।

   দেশ ভিন্ন, ভিন্ন ভাষা, জাতিও ভিন্ন,

     শুধু অভিন্ন আমাদের হৃদয়,

    আমাদের পছন্দের তালিকা এতই দীর্ঘ

       যে শুধুমাত্র কথাতেই সময় কেটে যায়।।

তুমি বললে উপন্যাস, আমার মনে রবীন্দ্রনাথ,

    তুমি বললে চিত্রশিল্প, আমি ফিদা হুসেনে,

তুমি বললে কবিতা, আমি বললাম নজরুল,

    তোমার মনে মার্গসঙ্গীত, আমার বিচরণ ভীম সেনে।।

আলাপে যখন ক্রীড়া এলো, তোমার কথায় তেন্ডুলকার,

 আমি বললাম লেখক, তোমার মনে তখন তসলিমা,

আমার ভাষায় আধুনিক গান, তোমার গহনে মান্না দে,

    আমারতো রবীন্দ্রসংগীত, তোমার ভাবনায় রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা।।

আমি বললাম পাহাড় কি দেখেছো?

 মৃদু হেসে বললে, তোমারতো বিশাল হিমালয়?

নদীতে তীরে যখন সূর্যাস্তের রক্তিমাভা ছায়,

    তোমার নাও তখন বহূ দূর ভাসে সেই পদ্মায়।।

আমার মনের বেলাভূমিতে তোমার দিগন্ত ছায়,

     তোমার নাও বেগবান হয় গঙ্গা ও পদ্মার সহবাসে,

সবুজ ধানের ক্ষেত আর শিশির ভেজা শিউলি ভোর,

      আমাদের মানস-সঙ্গম ঋদ্ধ হয় ব্যবচ্ছেদের পরবাসে।।

বেলা অবেলার কথোপকথনে বালুঘড়ি দৈর্ঘতা নিয়ে,

            আমাদের মাঝে দূরত্বের হাতছানি ইশারায় শুধুই উপোসী,

আকাশে এক অদ্ভুত বিষন্নতার সুরমাখা রক্তিম আভা,

             দূর থেকে ভেসে আসা আজানের ধ্বনিতে মন উদাস ওহে পরদেশী ।।

_____


FavoriteLoading Add to library
ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment