স্বাধীনতা

– কৌশিক চক্রবর্ত্তী

  মাদের দৈনন্দিন জীবনে অসংখ্য কাঙ্খিত নৈমিত্তিক চাহিদার মধ্যে স্বাধীনতা অগ্রগণ্য বলেই আমার ধারণা। কিন্তু স্বাধীনতার সংজ্ঞাটি মনে হয় ব্যক্তিভিত্তিক; অর্থাৎ আমরা প্রত্যেকেই স্বাধীনতার ক্ষেত্রে নিজস্ব ভিন্ন মত পোষণ করে থাকি। আমার ব্যক্তিগত ধারণা হল স্বাধীনতা মূলত দুই প্রকারের যথাক্রমে ব্যক্তি-স্বাধীনতা ও সামাজিক-স্বাধীনতা। আমার বর্তমান লেখার বিষয় ব্যক্তি-স্বাধীনতা হলেও সামাজিক-স্বাধীনতার আলোচনা ছাড়া তা অসম্ভব।

আজ থেকে প্রায় ৭২ বৎসর আগে অসংখ্য জটিলতার সঙ্গে স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম ভারতমাতার অসংখ্য দৃঢ়চেতা, অসীম  সাহসী ও স্বাধীন মনস্ক দামাল সন্তানদের দীর্ঘ প্রচেষ্টার ফলে এবং এর প্রধান উদ্দেশ্যই যে “সামাজিক ভাবে ব্যাক্তি ভিত্তিক”  স্বাধীন ভারতীয় হওয়ার প্রচেষ্টা তা অনস্বীকার্য। কিন্তু আজ উক্ত বিষয় নিয়ে পুনরায় চিন্তা-ভাবনা করার মূল কারণ হ’ল স্বাধীন দেশের নাগরিক হওয়া সত্ত্বেও আমরা বর্তমানে সামাজিক ও ব্যক্তিগত ভাবে কতটা স্বাধীনতার একটি পরিমাপ করার প্রচেষ্টা মাত্র !

সমাজ ও ব্যক্তি একে অপরের পরিপূরক হলেও “ব্যক্তিগোষ্ঠী ও একান্ত ব্যক্তিগত” দুটি সম্পূর্ণ ভিন্ন ।

আমরা সামাজিক ভাবে যে এখনও যথেষ্ট পরাধীন তার জন্য “গনধর্ষণ থেকে পণপ্রথা” পর্যালোচনা করলেই  যথেষ্ঠ ;

আর ব্যক্তি-স্বাধীনতার কঙ্কালসার চেহারার পরিচয় “রাজনৈতিক প্রতিহিংসা থেকে বধূনির্যাতন”-এর পর্যালোচনায় পাওয়া যায়।

অর্থাৎ আমরা সত্যই ব্যক্তিগত ও সামাজিক ভাবে স্বাধীনতাকে উপভোগ করতে পারছি না। শিক্ষা ও সাংস্কৃতির ব্যাপক  প্রসারই একমাত্র স্বাধীনতার সঠিক মূল্যায়ণ করতে সক্ষম। তাই সকল জাতি, ধর্ম, বর্ণ ও ভাষার ভেদাভেদকে দূরে রেখে সকল রাজনৈতিক পরিচালক মণ্ডলির উচিত স্বাধীনতার মূলমন্ত্র হিসাবে শিক্ষাকে প্রাধান্য দেওয়া, যাতে প্রত্যেক ব্যাক্তি নূন্যতম  রুচিবোধের পরিচয় সামাজিক গঠনমূলক কর্মক্ষেত্রে রাখতে পারে এবং সামাজিকভাবে প্রত্যেক ব্যক্তির খাদ্য, পোশাক ও বাক -স্বাধীনতা থাকে।

সময় কিন্তু বলছে যে সমাজের সকল স্তর থেকে আমাদের  সকলকে কবি রঙ্গলাল বন্দ্যোপাধ্যায়ের সুরে সুর মিলিয়ে বলতে হবে:-

স্বাধীনতা-হীনতায় কে বাঁচিতে চায় হে,

কে বাঁচিতে চায় ?

দাসত্ব শৃঙ্খল বল কে পরিবে পায় হে,

কে পরিবে পায়।

কোটি কল্প দাস থাকা নরকের প্রায় হে,

নরকের প্রায়।

দিনেকের স্বাধীনতা, স্বর্গ-সুখ তায় হে,

স্বর্গ-সুখ তায়।….

——-


FavoriteLoading Add to library
Up next
বসুধার কান্না – গার্গী লাহিড়ী... ঘুরতে ঘুরতে ক্লান্ত অবনি নিতে চায় অবসর, উত্তরে বলে বিশ্ব বিধাতা আরো পর আরো পর | কাতর কণ্ঠে ধরা বলে যায় আমার সবুজ সকলই শুকায়, এত অন্যায় এত অবিচ...
যন্ত্রণা – অনিন্দিতা দাস... দু-বছরের ছোট্ট শিশু ব্যাগের বোঝা কাঁধে যাচ্ছে সে ইসকুলেতে বাবা মায়ের সাথে। গল্প শোনায়, খেলতে যাওয়ায় আছে মায়ের বারণ টেলিভিশনে চোখ রাখতে বাবার করা ...
কনফেশন – তমালী চক্রবর্ত্তী...  থানায় ঝড়ের বেগে ঢুকল এক অল্প বয়সী ছেলে। অফিসার কে বলল স্যার আমি কিছু বলতে চাই। অফিসার তার দিকে একদৃষ্টে তাকিয়ে জলের গ্লাস টা এগিয়ে দিল। একবারে জল শেষ...
আমার ঠাকুর - চন্দ্রাবলী ব্যানার্জী   দিদির ওয়ার্ক এডুকেশন খাতায় প্রথম দেখলাম সাদা দাড়ি ওয়ালা একটা লোকের ছবি, এক পাশে ছবি সাঁটা, অন্য দিকে এত্তসব লেখা ...
পত্র – সমর্পণ মজুমদার... হে প্রিয় পরমাপন অভিন্নপ্রাণ মিত্র, বহুদিন তব সংবাদ বিনা চঞ্চল মোর চিত্ত। হেথা মোর দেহ স্বাস্থ্যযুক্ত, গৃহেতে বিরাজে শান্তি, তবু হে বন্ধু, দিবসে-রা...
দৃষ্টিভেদ – শুভেন্দু সামন্ত... হিমের ভোর-জানালার রোদ শিখার মতো তোমার মায়াভরা দৃষ্টি , বুক ভেদ করে যায় চোলে । এ-প্রান্ত থেকে ও- প্রান্ত ।এ বড় মধুর দহন , যেন স্বপ্নের দেশে স্ব...
ভুতের মুখে রাজকুমার – রাজদীপ ভট্টাচার্য্য... ৩১শে  আগস্ট রাজকুমার রাও এবং শ্রদ্ধা কাপুর অভিনীত ছবি 'স্ত্রী' মুক্তি পেলো | বহুদিন পর বলিউড তাদের ভক্তদেরকে এক কমেডি হরর ছবি উপহার দিলো | এই ছবি তে র...
বেল – অদিতি রায় সাইকেল নিয়ে ফিরলে আর বেল দিতে শুনিনা সজোরে, যে বেল এর সঙ্গে ছিল সান্তার থলির থেকে অনেকটা আনন্দের হুড়মুড়িয়ে বেরিয়ে আসার নির্মল আওয়াজ৷ দূরের কোনো...
দেশগাথা – সমর্পণ মজুমদার...     এই সেই দেশ, ভূমিতে যাঁহার সকল জাতির ধূলি- সুনিপুণভাবে মিশিয়াছে মহা মিলনের রব তুলি। এই সেই দেশ ঐক‍্য যাঁহার আজনম মহাব্রত, সে ব্রত...
দেখ কেমন লাগে – দেবাশিস ভট্টাচার্য... সাল--2218 একটু আগেই ঘুম টা ভাঙলো সায়ন এর সানাই এর আওয়াজে।মাথা টা এমনিতেই ভারী হয়ে রয়েছে।সেই ভোর রাত্তিরে মা,দিদি আরো সবাই এসে দই,চিঁড়ে দিয়ে মাখা একট...
ADMIN

Author: ADMIN

Comments

Please Login to comment